বিশ্ব বাণিজ্য

স্বর্ণ উৎপাদনে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ছাড়াল ঘানা

শেয়ার বিজ ডেস্ক: দক্ষিণ আফ্রিকাকে ছাড়িয়ে আফ্রিকা মহাদেশের শীর্ষ সোনা উৎপাদনকারী দেশে পরিণত হয়েছে ঘানা। বার্তা সংস্থা ব্লুমবার্গের এক অনুসন্ধানে বিষয়টি জানা গেছে। খবর: বিবিসি।
প্রতিবেদন মতে, দক্ষিণ আফ্রিকা গত কয়েক দশক ধরে মহাদেশটির শীর্ষ সোনা উৎপাদনকারী দেশ ছিল; কিন্তু উৎপাদন খরচ বেড়ে যাওয়ায় ও শ্রমিক অসন্তোষের কারণে সেখানে শিল্পটির উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে। অপরদিকে নতুন বিনিয়োগের পাশাপাশি ঘানায় উৎপাদন খরচও কম।
ঘানার চেম্বার অব মাইনস এবং মিনারালস কাউন্সিল অব সাউথ আফ্রিকার দেওয়া পরিসংখ্যানের উদ্ধৃতি দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ২০১৮ সালে ঘানা ৪৮ লাখ আউন্স সোনা উৎপাদন করেছে, আর দক্ষিণ আফ্রিকা করেছে ৪২ লাখ আউন্স।
২০১৮-এর পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, আগের বছরের তুলনায় ঘানার সোনার উৎপাদন ১২ শতাংশ বেড়েছে।
ঘানার সোনা উৎপাদন শিল্পে বিনিয়োগ করা মার্কিন কোম্পানি নিউমন্ট গোল্ডকর্প করপোরেশন প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা গ্যারি গোল্ডবার্গ বলেছেন, ‘আমাদের পোর্টফোলিওর একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ ঘানা। ভূতাত্ত্বিকভাবে এখানে কার্যক্রম অব্যাহত রাখার ও বাড়ানোর ভালো সম্ভাবনা দেখছি।’ ঘানার বিনিয়োগ পরিবেশ নিয়েও সন্তোষ প্রকাশ করেছেন তিনি।
রয়টার্সের জরিপে দেখা গেছে, বিশ্বে স্বর্ণ উৎপাদনে শীর্ষ অবস্থান ধরে রেখেছে চীন। ২০১৭ সালে এশিয়ার এ বৃহৎ অর্থনীতির দেশটিতে মূল্যবান এ ধাতুটির উৎপাদন ৪২৬ টন। যা বিশ্বে মোট স্বর্ণের উৎপাদনের ১৩ শতাংশ। ২০১৭ সালে অস্ট্রেলিয়ায় উৎপাদন হয়েছে ২৯৫ দশমিক এক টন স্বর্ণ। এ পরিমাণ আগের বছর থেকে পাঁচ টন বেশি। তবে এ খাতের সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান মাইনএক্স বলছে, এ সময় অস্ট্রেলিয়ায় স্বর্ণ উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ছিল আরও বেশি। অস্ট্রেলিয়ার গত বছর তৃতীয় স্থান দখল করেছে রাশিয়া। ২০১৭ সালে দেশটি ২৭০ দশমিক সাত টন স্বর্ণ উৎপাদন করেছে। এ নিয়ে টানা সাত বছর রাশিয়ায় স্বর্ণ উৎপাদন বাড়ছে।
এদিকে মার্কিন ভূ-তাত্ত্বিক জরিপ অনুযায়ী স্বর্ণ উৎপাদন কমলেও মজুদে দ্বিতীয় বৃহত্তম দেশের অবস্থান ধরে রেখেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। গত বছর অস্ট্রেলিয়ায় স্বর্ণ মজুদ ছিল ৯ হাজার ৮০০ টন। যেখানে দক্ষিণ আফ্রিকায় মজুদ ছিল ছয় হাজার টন। এছাড়া গত বছর রাশিয়ায় পাঁচ হাজার ৩০০ টন, যুক্তরাষ্ট্রে তিন হাজার টন, পেরুতে দুই হাজার ৬০০ টন ও ইন্দোনেশিয়ায় দুই হাজার ৫০০ টন স্বর্ণ মজুদ ছিল।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..