প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

স্বাস্থ্যবিধি তদারকিতে সড়কে বিআরটিএ’র ১০ ভ্রাম্যমাণ আদালত

নিজস্ব প্রতিবেদক: গণপরিবহনে শৃঙ্খলা ও সরকার ঘোষিত স্বাস্থ্যবিধি যথাযথ পরিচালিত হচ্ছে কি না, তা তদারকির জন্য রাজধানী ঢাকা ও চট্টগ্রামে ১০টি ভ্রাম্যমাণ আদালত নামিয়েছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন অথরিটি (বিআরটিএ)। গতকাল শনিবার এ দুই নগরীর বিভিন্ন এলাকায় এসব ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় বেশ কিছু পরিবহনকে জরিমানার আওতায় আনা হয়। পাশাপাশি মাস্ক পরিধান না করে গণপরিবহনে চলাচল করায় যাত্রীদের সতর্ক করা হয়।

বিআরটিএর উপপরিচালক (এনফোর্সমেন্ট) মো. হেমায়েত উদ্দিন বলেন, সড়কে পরিবহন আইন ও স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে কি না, তা দেখতে আমাদের ১০টির মতো ভ্রাম্যমাণ আদালত সড়কে কাজ করছে।

এর মধ্যে রাজধানী ঢাকার শাহবাগ, গুলিস্তান, ফুলবাড়িয়া বাস টার্মিনাল, মতিঝিল, রমনা, ওয়ারী, চকবাজার, গ্লোরিয়া, ডেমরা, বংশাল, লালবাগ, শ্যামপুর, সূত্রাপুর, হাজারীবাগ ও সদরঘাটের আশপাশ এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত-১-এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আয়েশা আক্তারের নেতৃত্বে অভিযান পরিচালিত হচ্ছে।

আর কেরানীগঞ্জ, ঢাকা-মুন্সীগঞ্জ মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ে, সায়েদাবাদ বাস টার্মিনাল, যাত্রাবাড়ী, ডেমরা, ঢাকা-সিলেট-চট্টগ্রাম মহাসড়ক এলাকায় পরিচালিত হচ্ছে ভ্রাম্যমাণ আদালত-৪। এর নেতৃত্ব দিচ্ছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফিরোজা পারভিন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইয়াসিন মনিরার নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত-৫-এর অভিযান পরিচালিত হচ্ছে ইসিবি চত্বর, বনানী, কাকলী রেলস্টেশন এলাকা, মহাখালী বাস টার্মিনাল, গাজীপুর সড়কে সিটি করপোরেশন সীমানা এলাকা, ৩০০ ফিট এলাকা এবং ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ মহাসড়কে সিটি সীমানা ও এর আশপাশ এলাকায়।

দিয়াবাড়ী, জোয়ারসাহারা, খিলক্ষেত, ঢাকা-আব্দুল্লাহপুর সড়কে সিটি করপোরেশন সীমানা এবং উত্তরা এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত-৬-এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ সাজিদ আনোয়ারের নেতৃত্বে একটি অভিযান পরিচালিত হচ্ছে। একইভাবে তেজগাঁও, ফার্মগেট, আদাবর, কলাবাগান, ধানমন্ডি, নিউমার্কেট, মোহাম্মদপুর, বসিলা ব্রিজ, বাবু বাজার এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত-৭-এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শাকিলা বিনতে মতিনের নেতৃত্বে অভিযান পরিচালিত হচ্ছে।

ভ্রাম্যমাণ আদালত-৮-এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. ফখরুল ইসলামের নেতৃত্বে অভিযান পরিচালিত হচ্ছে মিরপুর, কল্যাণপুর, গাবতলী বাস টার্মিনাল এবং ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে সিটি করপোরেশন সীমানা এলাকায়। আর গুলশান, ভাটারা, বাড্ডা, শাহাজাদপুর এবং রামপুরা ও এর পার্শ্ববর্তী এলাকা এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত ১০-এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ জুবের আলীর নেতৃত্বে অভিযান পরিচালিত হচ্ছে।

চট্ট মেট্রো সার্কেল-১ ও চট্ট মেট্রো সার্কেল-২-এর বন্দর, ইপিজেড, পতেঙ্গা, বহদ্দারহাট, চকবাজার, কোতোয়ালি, নিউমার্কেট, নতুন ব্রিজ, মইজ্জারটেক, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অধিক্ষেত্রাধীন বাস টার্মিনাল এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত ১১-এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট একি মিত্র চাকমার নেতৃত্বে অভিযান পরিচালিত হচ্ছে। চট্টগ্রাম জেলা সার্কেল অলংকার, জাকির হোসেন রোড, হালিশহর, আগ্রাবাদ, দেওয়ানহাট, পাহাড়তলী, টাইগারপাস, জিইসি মোড়, মুরাদপুর, অক্সিজেন, হাটহাজারী রোড এবং অধিক্ষেত্রে বাস টার্মিনাল এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত ১৩-এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইয়াসিন মনিরার নেতৃত্বে অভিযান পরিচালিত হচ্ছে।