খবর

স্বাস্থ্য সমস্যা সমাধানে রবির ‘মায়া আপা প্লাস’

শেয়ার বিজ ডেস্ক: গ্রাহকদের ব্যক্তিগত স্বাস্থ্য সমস্যার সমাধানে মোবাইল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান রবি আজিয়াটা এনেছে স্বাস্থ্যবিষয়ক অ্যাপ ‘মায়া আপা প্লাস’। রবি বলছে, এই সেবাটির মাধ্যমে গ্রাহকরা ব্যক্তিগত, স্বাস্থ্যগত ও মানসিক সমস্যার ‘নির্ভরযোগ্য’ পরামর্শ নিতে পারবেন।
এসএমএস ও মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে দৈনিক, সাপ্তাহিক, পাক্ষিক বা মাসিক প্যাকেজে সাবস্ক্রাইব করে সেবাটি নিতে পারবেন রবি গ্রাহকরা।
গতকাল রোববার দুপুরে রাজধানীর সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট পার্কে সেবাটির উদ্বোধন করেন তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।
এসময় আরও ছিলেন ‘মায়া আপা’ অ্যাপের প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও আইভি হক রাসেল, রবির চিফ করপোরেট অ্যান্ড পিপল অফিসার মতিউল ইসলাম নওশাদ।
আইভি হক রাসেল বলেন, “ব্যক্তিগত, স্বাস্থ্যগত ও মানসিক সমস্যার নির্ভরযোগ্য পরামর্শ পাওয়া অনেক সময় কঠিন হয়ে পড়ে। এ অবস্থায় তরুণরা নিজেরা অনেক ঝুঁকির মুখে পড়ে, এমনকি বিষন্ন হয়ে আত্মহত্যার পথও বেছে নেয়। পাশাপাশি আমাদের দেশে গর্ভবতী মায়েরাও প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। এই সমস্যাগুলোর সমাধান করতেই আমাদের এই অ্যাপসের পরিকল্পনা।”
মতিউল ইসলাম নওশাদ জানান, ‘মায়া আপা প্লাস’ অ্যাপ ব্যবহার করে রবি গ্রাহকরা প্রতিদিন ২৪ ঘণ্টা বিশেষজ্ঞদের কাছ থেকে যেকোনো প্রশ্নের পরামর্শ পাবেন। প্রশ্ন করার ১০ মিনিটের মধ্যে আসবে উত্তর।
এখানে ‘দ্রুততম সময়ের’ মধ্যে ব্যবহারকারীদের সর্বশেষ প্রশ্নের উত্তর আপডেট করা, ফটো অ্যাটাচমেন্ট, ভয়েস জিজ্ঞাসাসহ বিভ্ন্নি ফিচার দিয়ে সাজানো হয়েছে এই অ্যাপ। গ্রাহকদের সুবিধার্থে ইংরেজির পাশাপাশি থাকছে বাংলা ফন্ট।
নওশাদ বলেন, “এই সেবার সবচেয়ে বড় সুবিধা হল, গ্রাহকরা তাদের পরিচয় গোপন করে এই সুবিধাটি গ্রহণ করতে পারবেন।”
পরিচয় গোপন রেখে এবং নিরাপদ অনলাইন ম্যাসেজিং সার্ভিসের মাধ্যমে বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে ব্যবহারকারীর যোগসূত্র তৈরি করার লক্ষ্যে ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারিতে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে ‘মায়া আপা প্লাস’।
আইভি জানান, এখন সারাদেশ থেকে দৈনিক প্রায় ৫০০ প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হয় এই অ্যাপের মাধ্যমে। ২০১৬ সালে বাংলাদেশ সরকারের আইসিটি ইনোভেশন ফান্ড অ্যাওয়ার্ড পুরস্কারে ভূষিত হয়েছে।
প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক স্বাস্থ্যখাতে এই প্রকল্পকে ‘সামাজিক বিপ্লব’ হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, “স্বাস্থ্যবান এক ভবিষ্যৎ প্রজন্ম গঠনে এই অ্যাপটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।”
“ইন্টারনেট সুবিধা বাড়ানোর পাশাপাশি দ্রুততম সময়ের মধ্যে জনগণকে কার্যকর সেবা প্রদান করাই আমাদের লক্ষ্য। এসডিজি অর্জনে যেসব প্রকল্প আমরা নিয়েছি, তার মধ্যে এই অ্যাপটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।”
অ্যাপটি নিয়ে নানা প্রশ্নের উত্তর দেন মায়া’র চিফ মেডিকেল অফিসার পারমিতা করিম।
তিনি বলেন, “প্রথম সেবাটি ১০ মিনিটের মধ্যে দেওয়ার পর গ্রাহক নিশ্চয়ই আরও প্রশ্ন করবেন। আমরা যত দ্রুত সম্ভব তাকে সেবা প্রদান করবো। চিকিৎসক প্যানেলে যথেষ্ট অভিজ্ঞদের ঠাঁই দেওয়া হয়েছে।”
প্রতিটি ৪৮০ ক্যারাক্টারের এসএমএসের জন্য ২ টাকা চার্জ হিসেবে প্রযোজ্য হবে।
এছাড়াও প্রতি সপ্তাহের সাবস্ক্রিপশনের জন্য ৭ টাকা, পনের দিনের জন্য ১৪ টাকা এবং মাসিক পরিসেবার জন্য ৩০ টাকা চার্জ নেওয়া হবে গ্রাহকদের কাছ থেকে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..