Print Date & Time : 23 June 2021 Wednesday 5:19 pm

স্মরণীয়-বরণীয়

প্রকাশ: May 5, 2021 সময়- 12:28 am

দার্শনিক, অর্থনীতিবিদ, ইতিহাসবেত্তা, সমাজবিজ্ঞানী, সমাজতান্ত্রিক অর্থনীতির প্রবক্তা কার্ল মার্কসের আজ ২০৩তম জন্মবার্ষিকী। সমগ্র মানব ইতিহাসের প্রভাবশালী ব্যক্তিত্বদের একজন কার্ল মার্কস। তার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ রচনাগুলোর মধ্যে তিন খণ্ডে রচিত পুঁজি এবং ফ্রিডরিখ এঙ্গেলসের সঙ্গে যৌথভাবে রচনা করেন কমিউনিস্ট ইশতেহার। তার সমাজ, অর্থনীতি ও রাজনীতি-সংক্রান্ত তত্ত্বসমূহ মার্কসবাদ নামে পরিচিত। তার ইতিহাস দর্শন ঐতিহাসিক বস্তুবাদ বলে পরিচিত।

কার্ল মার্কস ১৮১৮ সালের ৫ মে জার্মানিতে জন্মগ্রহণ করেন। মাত্র ১৭ বছর বয়সে তিনি স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন। এরপর তিনি আইন বিষয়ে পড়াশোনা করেন। ১৮৪৪ সালে সমাজবিজ্ঞানী ফ্রেডরিক এঙ্গেলসের সঙ্গে বন্ধুত্ব হয়। এঙ্গেলসকে নিয়ে মার্কস গভীরভাবে ধ্রুপদি জার্মান দর্শন, চিরায়ত অর্থশাস্ত্র ও ফরাসি সমাজতন্ত্রের মূল নীতিগুলো অধ্যয়ন করেন এবং গড়ে তোলেন বৈজ্ঞানিক সমাজতান্ত্রিক মতবাদ, যা মার্কসবাদ নামে প্রতিষ্ঠিত। সমাজতান্ত্রিক রাষ্ট্র ব্যবস্থা একটি পুরোনো দর্শন হলেও কার্ল মার্কসই প্রথম একে সমাজের শ্রেণিগুলোর দ্বান্দ্বিকতার আলোকে অর্থনৈতিক তত্ত্ব প্রবর্তন করেন। তার প্রবর্তিত তাত্ত্বিক ভিত্তিতেই বিশ্বে প্রথম সমাজতান্ত্রিক রাষ্ট্রের উদ্ভব ঘটে।

১৮৪৮ সালে কার্ল মার্কস ‘কমিউনিস্ট ইশতেহার’ রচনা করেন। ১৮৪৪ সালে তিনি রচনা করেন ‘অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক খসড়া’। ১৮৪৭ সালে প্রুধোর ‘দরিদ্রের দর্শন’ নামে ইশতেহারের সমালোচনা করে মার্কস রচনা করেন ‘দর্শনের দারিদ্র্য’। একই বছর লেখেন ‘মজুরি শ্রম ও পুঁজি’। ১৮৫২ সালে কার্ল মার্কসের লেখা ‘দাস ক্যাপিটাল’ বা ‘পুঁজি’ বিশ্ব ইতিহাসের ভিত নাড়িয়ে দেয়। সমাজতান্ত্রিক অর্থনীতির এ তত্ত্ব পুঁজিবাদী শোষণের বিরুদ্ধে সংগ্রামরত শ্রমিক শ্রেণিকে মুক্তির পথ দেখিয়ে দেয়। এর আলোকেই ১৯১৭ সালে রাশিয়ায় প্রথম সমাজতান্ত্রিক বিপ্লব সংঘটিত হয়। মার্কস ও এঙ্গেলসের যৌথ রচনাবলির সংখ্যা মোট ৫০টি। ১৮৮৩ সালের ১৪ মার্চ তিনি মৃত্যুবরণ করেন। লন্ডনের হাইগেট সেমিটারিতে তার সমাধি ফলকে লেখা হয়, কমিউনিস্ট মেনিফেস্টোর শেষ লাইন ‘দুনিয়ার মজদুর এক হও’ এবং ১১তম থিসিস অন ফয়ারবাখ-এর এঙ্গেলীয় সংস্করণের বিখ্যাত উক্তি, ‘এতদিন দার্শনিকরা কেবল বিশ্বকে বিভিন্নভাবে ব্যাখ্যাই করে গেছেন, কিন্তু আসল কাজ হলো তা পরিবর্তন করা।’

কাজী সালমা সুলতানা