প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

স্মরণীয়-বরণীয়

বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের পরম প্রবাসী বন্ধু, গায়ক, গীতিকার, লেখক, সংগীতজ্ঞ, কবি, চিত্রকর বব ডিলান। সারা বিশ্বের অসংখ্য সংগীতশিল্পী আর মানবতাবাদীদের প্রেরণার উৎস তিনি। তিনি মানবতাবাদী গায়ক হিসেবে বিশ্বব্যাপী পরিচিতি পান। বব ডিলান গিটার আর হারমোনিকা বাজিয়ে গানে গানেই প্রতিবাদ জানিয়েছেন ভিয়েতনাম যুদ্ধ থেকে শুরু করে পৃথিবীর প্রতিটি মানবিক বিপর্যয়ের বিরুদ্ধে। বাংলাদেশের মুক্তির সংগ্রামে সাহাযার্থ্যে সংগীতকার রবিশংকর ও জর্জ হ্যারিসন ১৯৭১ সালের ১ আগস্ট নিউইয়র্কের ম্যাডিসন স্কয়ার গার্ডেনে ‘দি কনসার্ট ফর বাংলাদেশ’ কনসার্টের আয়োজন করে। সেখানে বব ডিলান তার বিখ্যাত ‘ব্লো ফর দ্য উইন্ড’ গান পরিবেশন করেন। তিনি বিট কবি অ্যালোন গিন্সবার্গের বিখ্যাত কবিতা যশোর রোডকেও গানে রূপান্তরের পরামর্শ দেন। ২০১৬ সালে তিনি সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার অর্জন করেন। বব ডিলান ১৯৪১ সালের ২৪ মে যুক্তরাষ্ট্রের অঙ্গরাজ্য মিনেসোটার একটি শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তার আসল নাম রবার্ট অ্যালেন জিমারম্যান। উচ্চবিদ্যালয়ে পড়ার সময় তিনি কয়েকটি ব্যান্ড গঠন করেন। তিনি আমেরিকার লোকসংগীত ও কান্টিব্লুজ থেকে বক অ্যান্ড রোল, ইংলিশ, স্কটিশ আইরিশ লোকগীতি, এমনকি জাজ সংগীতম সুইং, ব্রডওয়ে, হার্ডরক ও গসপেল গান করে প্রসিদ্ধ হন। তার বিক্রীত রেকর্ডের সংখ্যা ১০ কোটিরও বেশি। তিনি ১৯৬০-এর দশক থেকে পাঁচ দশকেরও বেশি সময় জনপ্রিয় ধারার মার্কন সংগীতের অন্যতম প্রধান পুরুষ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হন। বব ডিলান পৃথিবীর প্রথম গীতিকার যিনি নোবেল পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন। তিনি ১০টি গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ড, একটি গোল্ডেন গ্লোব ও একটি পুলিৎজার পুরস্কার লাভ করেন। পুরস্কার ছাড়াও তিনি আরও বহু স্বীকৃতি পেয়েছেন। এসবের মধ্যে উল্লেখযোগ্য ১৯৯৯ সালে বব ডিলান বিশ্ববিখ্যাত টাইম ম্যাগাজিনের জরিপে শতাব্দীর ১০০ গুরুত্বপূর্ণ মানুষের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হন। ২০০১ সালে বব মার্লি ও জন লেননের সঙ্গে যৌথভাবে বিবিসির অনলাইন জরিপে সর্বকালের সেরা গীতিকার নির্বাচিত হন, বিশ্ববিখ্যাত ম্যাগাজিন রোলিং স্টোন কর্তৃক নির্বাচিত ‘গ্রেটেস্ট আর্টিস্ট অব অল টাইম’-এর তালিকায় বব ডিলান দ্বিতীয় স্থান লাভ করেন। তার বেশ কয়েকটি অ্যালবাম বিক্রির সর্বোচ্চ তালিকায় স্থান পায় এবং ইয়ার অব দি অ্যালবামের স্বীকৃতি লাভ করে। ১৯৯০ সালে তিনি ফরাসি মিনিস্টার অব কালচার জ্যাস লাংয়ের কমান্ডিয়োর দি আর্টস অ্যাট দ্য লেটারস হিসেবে ভূষিত হন ।

কাজী সালমা সুলতানা