কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

হাজার কোটি টাকার বন্ড ছাড়বে আইএফআইসি ব্যাংক

নিজস্ব প্রতিবেদক: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংক খাতের প্রতিষ্ঠান আইএফআইসি ব্যাংক লিমিটেড এক হাজার কোটি টাকার পারপেচুয়াল বন্ড ইস্যুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রাপ্ত তথ্যমতে, ব্যাংকটি প্রাইভেট প্লেসমেন্টের মাধ্যমে ৯০০ কোটি টাকার বন্ড ইস্যু করবে। আর বাকি ১০০ কোটি টাকার বন্ড পাবলিক অফারের মাধ্যমে ইস্যু করবে। ব্যাংকের ব্যাসেল-৩-এর অধীন অতিরিক্ত টায়ার-১ মূলধন শক্তিশালী করার জন্য এই পারপেচুয়াল বন্ড ইস্যু করে অর্থ সংগ্রহ করবে। এর আগে গত ২৩ মে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ব্যাংকটির বন্ড ইস্যুর অনুমোদন দেয়। বিনিয়োগকারীদের অনুমতি নিতে আগামী ২৬ আগস্ট ব্যাংকটি বিশেষ সাধারণ সভা (ইজিএম) আহ্বান করেছে। ওইদিন সকাল ১১টায় ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে এই ইজিএম অনুষ্ঠিত হবে। ইজিএম-সংক্রান্ত রেকর্ড ডেট আগামী ১৩ জুলাই নির্ধারণ করা হয়েছে।

২০২০ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাববছরে নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে বিনিয়োগকারীদের পাঁচ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছে। আলোচিত সময়ে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৭০ পয়সা এবং ৩১ ডিসেম্বর শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৭ টাকা ১৮ পয়সা। এর আগে ২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাববছরে বিনিয়োগকারীদের হিসাববছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে ১০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছে। আলোচিত সময়ে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে এক টাকা ৯২ পয়সা এবং ৩১ ডিসেম্বর শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৮ টাকা দুই পয়সা।

ব্যাংক খাতের এ কোম্পানিটি ১৯৮৬ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়ে বর্তমানে ‘এ’ ক্যাটেগরিতে অবস্থান করছে। চার হাজার কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন এক হাজার ৭০০ কোটি ৮৭ লাখ টাকা। কোম্পানিটির ১৭০ কোটি ৮ লাখ ৬৭ হাজার ৫৬১টি শেয়ার রয়েছে। ডিএসই থেকে প্রাপ্ত সর্বশেষ তথ্যমতে, কোম্পানির মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের কাছে রয়েছে চার দশমিক ১১ শতাংশ, সরকারি ৩২ দশমিক ৭৫ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক ২৩ দশমিক ৯৪ শতাংশ, বিদেশি বিনিয়োগকারীদের কাছে শূন্য দশমিক ৭২ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ৩৮ দশমিক ৪৮ শতাংশ শেয়ার।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..