দুরে কোথাও

হাজার বছরের পুরোনো পাঁচ

বর্তমান বিশ্বে সাড়ে চার হাজারের বেশি শহর রয়েছে। জনসংখ্যা যত বাড়ছে নতুন শহরের সংখ্যাও তত বাড়ছে। নগরায়ণের এ প্রক্রিয়া শুরু হয় হাজার বছর আগে থেকে। যে শহরগুলো প্রাচীনকালে সৃষ্টি হয়েছিল, সেগুলো আজও টিকে রয়েছে স্বমহিমায়। শহরগুলোকে ঘিরে ছড়িয়ে রয়েছে ইতিহাসের নানা ঘটনাবলি। এমনি হাজার বছর ধরে টিকে থাকা পাঁচ শহরের কয়েকটি দিক তুলে ধরা হলো।

রোম
হাজার বছরের পুরোনো ও বিখ্যাত শহরগুলোর মধ্যে ইতালির রাজধানী রোম অন্যতম। আড়াই হাজার বছরের বেশি পুরোনো হলেও আজও শহরটিকে সমসাময়িক মনে হয়। সদর্পে এর নাম মানুষের মুখে উচ্চারিত হয়। রোমান সভ্যতার অনন্য সব নিদর্শনে ঠাসা এ শহরটি এখনও সগর্বে ঘোষণা করেছে অতীতের সে সোনালি সমৃদ্ধির কথা। বিশেষ করে শহরের মাঝখানে এখনও টিকে রয়েছে দুই হাজার বছরের বেশি আগে নির্মিত ‘কলোসিয়াম’, যেখানে সে সময় ৫০ হাজারেরও বেশি দর্শক একসঙ্গে গ্ল্যাডিয়েটরদের রক্তক্ষয়ী লড়াই প্রত্যক্ষ করত।

কায়রো
দুই কোটির বেশি মানুষ বাস করে মিসরের রাজধানী কায়রোতে। বিশ্বের শীর্ষ জনবহুল শহরগুলোর মধ্যে অন্যতম এটি। হাজার বছরের পুরোনো নিদর্শন যেমন পিরামিড বা স্ফিংসের মূর্তিসহ অসংখ্য স্থাপনা আজও চোখে পড়ে। এছাড়া শহরটির ধর্মীয় ও সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য উঠে আসে নানা গল্পকথায়। মিসরীয় সভ্যতার গোড়ার দিকেই গড়ে উঠেছে বর্তমানের আধুনিক এ শহরটি।

তেহরান
প্রাচীন পারস্য সভ্যতার শাসকদের হাত ধরে গড়ে উঠে সমৃদ্ধশালী তেহরান। তখন এ শহরে নির্মিত হয়েছিল প্রাসাদ, উপাসনালয় ও আরও অনেক স্থাপনা, যা স্থাপত্যকলার অনন্য নিদর্শন হিসেবে আজও চোখ ধাঁধিয়ে দেয়। ৩০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দে আলেকজান্ডার দ্য গ্রেট শহরটিতে আক্রমণ চালিয়ে পশ্চিমাংশ ধ্বংস করে দেন। ১৬১৮ সালে ওই ধ্বংসস্তূপ পুনরায় আবিষ্কৃত হয়।

এথেন্স
প্রাচীন গ্রিক সভ্যতার কথা নতুন করে বলার কিছু নেই। গ্রিসের রাজধানী এথেন্স শহরটি যেন সেই পুরোনো আবহে আধুনিকভাবে গড়ে উঠেছে। পাঁচ হাজার বছর আগে গড়ে ওঠা শহরটির সংরক্ষিত অসাধারণ সব স্থাপনা
যেন এথেন্সবাসীর প্রাত্যহিক জীবনের অংশ হয়ে উঠেছে।

বাগদাদ
অ্যাসিরীয় সভ্যতার অনন্য নিদর্শন ইরাকের রাজধানী বাগদাদ। এ শহরটি বিশ্বের প্রথম সাম্রাজ্যের অতুলনীয় কীর্তি। তবে বর্তমানে শহরটি শুধুই ধ্বংসস্তূপ ছাড়া আর কিছু নয়। আশা করা যায়, এ দশা থেকে আবারও মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে শহরটি।

সর্বশেষ..