প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

হামদর্দ জেনারেল হাসপাতালে রোগী দেখছেন ড. কাজমি

ইউনানি চিকিৎসা ক্ষেত্রে ভারতের কিংবদন্তিতুল্য চিকিৎসক এবং সম্প্রতি হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের ইউনানি চেয়ার হিসেবে নিয়োগকৃত অধ্যাপক ড. মনোয়ার হোসেন কাজমি হামদর্দ জেনারেল হাসপাতালে নিয়মিত চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন। ঢাকার অদূরে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় অবস্থিত ইউনানি-আয়ুর্বেদিক ও অ্যালোপ্যাথিক চিকিৎসার সমন্বয়ে গড়ে ওঠা হামদর্দ জেনারেল হাসপাতালের বহির্বিভাগে তিনি প্রতিদিন সকাল সাড়ে ১০টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত রোগী দেখছেন। শ্বসনতন্ত্রের সমস্যা, বয়স্ক লোকদের স্মৃতিভ্রম, সাইনোসাইটিস, মাইগ্রেন, ব্রেন স্ট্রোক পরবর্তী চিকিৎসা নিউরো রিহ্যাবিলিটিস, প্রিভেনটিভ কার্ডিওলজি, ক্রনিক ডিজিস, সব ধরনের বাতের ব্যথা, স্থূলতা দূরীকরণ ইত্যাদি বিষয়ে তার পরামর্শ অনুযায়ী চিকিৎসা গ্রহণ করে ইতোমধ্যে বিপুলসংখ্যক রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

এছাড়া ইউনানি পদ্ধতিতে চিকিৎসা নিতে রোগীদের আগ্রহী করতে প্রতি শনি ও বুধবার হাসপাতালে মোটিভেশনাল সেশনে পরামর্শ দিচ্ছেন অধ্যাপক ড. মনোয়ার হোসেন কাজমি। এর মাধ্যমে রোগীরা সহজলভ্য ও অধিক কার্যকর ইউনানি মাধ্যমে চিকিৎসা নিতে আরও বেশি আন্তরিক হচ্ছেন।

ডা. মনোয়ার হোসেন কাজমি হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের বিইউএমএস প্রোগ্রামের শিক্ষার্থীদের জন্য বেসিক প্রিন্সিপাল অব ইউনানি মেডিসিন ও ফার্মেসি বিষয়ে সপ্তাহে দুদিন ক্লাসও নিচ্ছেন।

ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রেরিত অধ্যাপক ড. মনোয়ার হোসেন কাজমি ‘ইউনানি চেয়ার’ হিসেবে গত ৩১ মার্চ হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগ দেন। ইউজিসির নীতিমালা অনুসরণ করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ এবং ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সেন্ট্রাল কাউন্সিল ফর রিসার্চ ইন ইউনানি মেডিসিনের (সিসিরাম) মধ্যে একটি এমওইউ স্বাক্ষরিত হয়। এ চুক্তির মাধ্যমেই ভারত সরকার একজন ইউনানিবিষয়ক গবেষক ও অধ্যাপককে হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশে পাঠিয়েছে। বিজ্ঞপ্তি