শেষ পাতা

১০০ টাকার নিচে পেঁয়াজ পাওয়ার সম্ভাবনা নেই : বাণিজ্যমন্ত্রী

১০০ টাকার নিচে পেঁয়াজ পাওয়ার সম্ভাবনা নেই : বাণিজ্যমন্ত্রী

প্রতিনিধি, রংপুর: বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি জানিয়েছেন, ‘আমরা চেষ্টা করছি। তবে পেঁয়াজ ১০০ টাকার নিচে পাওয়ার কোনো সম্ভাবনা আপাতত নেই। এ মাসের শেষদিকে দেশে উৎপাদিত পেঁয়াজ বাজারে এলে দাম কমবে। তার আগে হয়তো দাম কমার সম্ভাবনা নেই।’

গতকাল সকালে রংপুর নগরীর একটি হোটেলে ইটভাটা মালিকদের এক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এসে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মিসর থেকে ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ আসার কথা। সেটা এলেও দাম একটু কমতে পারে বলে মনে হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘ভারত থেকে আমরা মূলত পেঁয়াজ আমদানি করে থাকি। সেখানে পেঁয়াজের দাম বেড়ে গেছে। সেখানেই পেঁয়াজ ৮০ টাকা কেজিদরে কিনতে হবে। আমাদের দেশে আসার পর তা ১০০ টাকা দর পড়ে যাবে। ফলে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি করে আপাতত কোনো লাভ নেই।’

মন্ত্রী বলেন, পেঁয়াজের বাজার মনিটরিং করার জন্য মন্ত্রণালয়ের উচ্চপদস্থ এক কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

এদিকে চট্টগ্রামের প্রতিবেদক জানান, টেকনাফ স্থলবন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি বেড়েছে। গত বৃহস্পতিবার এক দিনে আমদানি হয়েছে এক হাজার ৮১৬ টন পেঁয়াজ। ভারত থেকে রফতানি বন্ধের পর থেকে এ নিয়ে স্থলবন্দরটি দিয়ে ২৮ হাজার ৮৬৯ টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে।

ভারত রফতানি বন্ধের পর শুরুতে দিনে ৬০০ টন করে পেঁয়াজ আমদানি হতো। ধীরে ধীরে বেড়ে এখন তা দিনে দেড় হাজার টন ছাড়িয়ে গেছে। সরবরাহ বাড়ায় বাজারে প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। বৃহস্পতিবারও বন্দরে খালাসের অপেক্ষায় ১৫টি পেঁয়াজবোঝাই ট্রলার নোঙর করে ছিল জেটিতে।

এদিকে মূল্য তালিকার চেয়ে ১৫-২০ টাকা বেশি দামে বিক্রি করে পেঁয়াজের খুচরা বাজার প্রভাবিত করায় চট্টগ্রাম নগরীর বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ছয় খুচরা দোকানিকে মোট এক লাখ টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বৃহস্পতিবার নগরীর কাজীর দেউড়ি, কর্ণফুলী শপিং কমপ্লেক্স, দুই নম্বর গেট এবং বহদ্দারহাট কাঁচাবাজারে যৌথভাবে এ অভিয়ান পরিচালনা করে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর ও চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন।

এর মধ্যে বহদ্দারহাট মার্কেটে মাবিয়া স্টোরকে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা ও মা-বাবা স্টোরকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া কর্ণফুলী মার্কেটের মক্কা স্টোর ও জালাল স্টোরকে পাঁচ হাজার টাকা করে এবং কাজীর দেউড়ির ভাই ভাই ডিপার্টমেন্টাল স্টোর ও ইলিয়াস স্টোরকে পাঁচ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়।

সর্বশেষ..