প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

১০ ডিসেম্বর যান চলাচল স্বাভাবিক থাকবে: ওবায়দুল কাদের

প্রতিনিধি, দিনাজপুর: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ১০ ডিসেম্বর বিএনপির ঢাকার মহাসমাবেশে বাধা দেয়া হবে না। গণপরিবহন চলাচল স্বাভাবিক থাকবে। গতকাল দিনাজপুর গোর-এ শহিদ বড় ময়দানে জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব বলেন।

তিনি আরও বলেন, সুষ্ঠু ভোট হবে। ভয় পাবেন না। শেখ হাসিনা রুটিন দায়িত্ব পালন করবেন। অন্যান্য দেশে যেভাবে ক্ষমতাসীন সরকার দায়িত্ব পালন করে, সেভাবে শেখ হাসিনার সরকার রুটিন দায়িত্ব পালন করবে। আসল দায়িত্ব নির্বাচন কমিশনের। কমিশনের অধীনেই একটি নিরপেক্ষ ভোট হবে ইনশাআল্লাহ।

এ সময় বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, আপনারা উসকানি দেবেন না। উসকানি দিলে কিন্তু খবর আছে। আওয়ামী লীগের কর্মীরা মাঠ ছেড়ে দিয়ে সতর্ক পাহারায় থাকবে। দেখি কে কী করে। আপনারা আমাদের ওপর হামলা করবেন আর আমরা দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে ললিপপ খাব! এটা কি হয়? খেলা হবে। ডিসেম্বরে খেলা হবে। খেলা হবে আন্দোলনে। আসল খেলা হবে নির্বাচনে।

মঞ্চে উপস্থিত শ্রমিক নেতা ও সংসদ সদস্য শাজাহান খানকে উদ্দ্যেশ্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, আপনাকে অনুরোধ করব আপনারা বাসমালিক সমিতি এবং পরিবহন শ্রমিকদের বলে দেবেন ১০ ডিসেম্বর বাস বন্ধ থাকবে না। সমাবেশের আগে ও পরে সব পরিবহন চালু রাখবেন। বিএনপি বলে আমরা তাদের সমাবেশে বাধা দেয়ার জন্য ছাত্রলীগের সমাবেশ দিয়েছি ৮ ডিসেম্বর। নেত্রী বললেন, দরকার নেই। তারা সমাবেশ করুক। আমরা ছাত্রলীগের সমাবেশ ৬ তারিখে এগিয়ে এনেছি। তবে এটি বিএনপির আন্দোলনের ফসল নয়, এটি শেখ হাসিনার উদারতা।

গতকাল সোমবার দুপুর ১২টায় জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে সম্মেলন শুরু হয়। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান ফিজারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন অনুষ্ঠানের উদ্বোধন ঘোষণা করেন। সম্মেলনে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন প্রেসিডিয়াম সদস্য শাজাহান খান, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন শফিক, নৌ-প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, হুইপ ইকবালুর রহিম, সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল, আবুল হাসান মাহমুদ আলী, শিবলী সাদিক, অ্যাডভোকেট জাকিয়া তাবাসসুম জুঁই প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, দিনাজপুরে দীর্ঘ এক দশক পর অনুষ্ঠিত আওয়ামী লীগের এ সম্মেলনে মোস্তাফিজুর রহমানকে পুনরায় সভাপতি ও আলতাফুজ্জামান মিতাকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হয়।