করপোরেট কর্নার

১০ লাখ পরিবারে প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা পৌঁছে দেবে বিকাশ

আবারও কভিড পরিস্থিতির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত ৩৬ লাখ পরিবারের জন্য জিটুপি পদ্ধতিতে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে সরাসরি উপকারভোগীর অ্যাকাউন্টে অর্থ সহায়তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে দ্বিতীয় পর্যায়ের এ অর্থ সহায়তা কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।

২০২০ সালে করোনায় কর্মহীন ১০ লাখ প্রকৃত উপকারভোগীর কাছে প্রধানমন্ত্রীর অর্থ সহায়তা পৌঁছে দেয়ায় এবারও বিকাশের মাধ্যমে তাদের কাছে প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক অনুদান পৌঁছে যাচ্ছে। আগামী তিন দিনের মধ্যেই সব উপকারভোগীর বিকাশ অ্যাকাউন্টে এ অর্থ সহায়তা পৌঁছে যাবে বলে আশা করা যাচ্ছে।

এ আর্থিক সহায়তায় উপকারভোগীরা হচ্ছেন কভিড-১৯-এর প্রভাবে কর্মহীন হওয়া প্রান্তিক মানুষ। প্রধানমন্ত্রীর এ উদ্যোগে প্রতিটি পরিবার ২ হাজার ৫০০ টাকা করে সহায়তা পাচ্ছেন। ডিজিটাল বাংলাদেশ অবকাঠামোগত সুবিধা ব্যবহার করে এবারও জাতীয় পরিচয়পত্রের ভেরিফিকেশনের মাধ্যমে প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তির কাছে স্বচ্ছতা, দ্রুততা ও নিরাপত্তার সঙ্গে মোবাইল আর্থিক সেবাই সহায়তার অর্থ বিতরণ করা হচ্ছে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিভিন্ন জেলা থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ে সংযুক্ত উপকারভোগীদের সঙ্গে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। সরকারি সাহায্যের এ টাকা ক্যাশ আউটের ক্ষেত্রে উপকারভোগীর কোনো খরচ লাগবে না। মোট ক্যাশ আউট খরচের ১৫ টাকা দেবে সরকার। বিজ্ঞপ্তি

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..