প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

১ কোটি ২৬ লাখ টাকা শোধ করার পর জামিন

ইস্টার্ন ব্যাংকে খেলাপি

নিজস্ব প্রতিবেদক: ইস্টার্ন ব্যাংকের ঋণখেলাপি ব্যবসায়ীকে এক কোটি ২৬ লাখ টাকা শোধের ভিত্তিতে জামিন দিয়েছেন চট্টগ্রাম অর্থঋণ আদালত। পাশাপাশি আগামী ৯০ দিনের মধ্যে পুরো টাকা পরিশোধের জন্য বন্ড নিয়ে তাকে জামিন দেয়া হয়েছে। গতকাল চট্টগ্রাম অর্থঋণ আদালতের যুগ্ম জেলা জজ মুজাহিদুর রহমান এই নির্দেশনা জারি করেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, আসামির পুরো পরিবার বিভিন্ন ব্যাংকে ঋণখেলাপি। ইস্টার্ন ব্যাংকের গ্রাহক আশরাফ এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী মো. আশরাফ হোসেন এই মামলার মূল আসামি। ঋণখেলাপির দায়ে চলতি বছরের ১৮ মে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। গতকাল এক কোটি ২৬ লাখ টাকা পরিশোধ করে আদালত থেকে জামিন পেয়েছেন মো. আশরাফ হোসেন।

উল্লেখ্য, এই আদালতের নির্দেশেই চলতি মাসেই ইস্টার্ন ব্যাংকের অপর গ্রাহক মেসার্স লোটাস করপোরেশন থেকে ১০ কোটি টাকা আদায় করেছে। জেল খাটা থেকে বাঁচতে ১১ বছর আগের ১০ কোটি টাকার খেলাপি ঋণ ফেরত দিয়ে দিয়েছেন তিন সহোদর ব্যবসায়ী। খেলাপি অর্থ ফেরত দেয়ায় তাদের বিরুদ্ধে জারি করা পরোয়ানা রদ করেছেন আদালত।

আদালত সূত্র জানায়, ইস্টার্ন ব্যাংকের এই খেলাপি ঋণ আদায়ে ২০১৫ সালে মামলা হয়। কিন্তু তিন ব্যবসায়ী টাকা ফেরত দিচ্ছিলেন না। পরে ব্যাংকের আবেদনে তাদের বিরুদ্ধে পাঁচ মাসের দেওয়ানি আটকাদেশ দিয়ে সাজা পরোয়ানা ইস্যু করা হলে তারা অর্থ ফেরত দেন। পরে ব্যাংকের আবেদনে মামলাটি নিষ্পত্তি ও তিন ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে জারি করা সাজা পরোয়ানা প্রত্যাহার করা হয়।

প্রসঙ্গত, ২০১১ সালে সীতাকুণ্ডের ভাটিয়ারীর মেসার্স লোটাস করপোরেশন ইস্টার্ন ব্যাংক নগরীর আগ্রাবাদ শাখা থেকে এ ঋণ নেন। এর ম্যানেজিং পার্টনার মোহাম্মদ হাসান, মো. মহসীন ও মো. সেলিম। ঋণ পরিশোধের পর চট্টগ্রাম অর্থঋণ আদালতের বিচারক মুজাহিদুর রহমান ১২ মে এক আদেশে মামলাটি নিষ্পত্তি এবং বিবাদীদের বিরুদ্ধে জারি করা দেওয়ানি আটকাদেশ রদ করেন। ঋণখেলাপি তিন ভাই চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের ভাটিয়ারীর সাউথ বাজার এলাকার বাসিন্দা।