প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

২২ বছর ধরে পদোন্নতি পাচ্ছেন না কারিগরি শিক্ষকরা

সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক : কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষার মানোন্নয়ন ও সম্প্রসারণের লক্ষ্যে পদোন্নতি, সিলেকশন গ্রেড ও টাইমস্কেল প্রদানের দাবি জানিয়েছেন টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজে (টিএসসি) কর্মরত শিক্ষকরা। তাদের অভিযোগ, ‘প্রায় ২২-২৩ বছর একই পদে কর্মরত থাকার পরও কোনো পদোন্নতি দেয়া হয়নি। আমলাতান্ত্রিক জটিলতার কারণে এই টেকনিক্যাল শিক্ষা চলছে ধীর গতিতে।’

গতকাল জাতীয় প্রেস ক্লাবের মওলানা মোহাম্মদ আকরম খাঁ হলে ‘বাংলাদেশ টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ শিক্ষক সমিতি’ আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তারা এ দাবি করেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আ স ম আহছান উল্লাহ্ বলেন, ‘অত্যন্ত দুঃখের বিষয়, টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজে কর্মরত শিক্ষকদের ২২-২৩ বছর একই পদে কর্মরত থাকার পরও কোনো সিলেকশন গ্রেড ও টাইমস্কেল দেয়া হয়নি। এতে করে দেশের কারিগরি শিক্ষা প্রদানকারী শিক্ষকরা হতাশার মধ্যে রয়েছেন এবং আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন।’

তিনি বলেন, ‘নিয়োগ বিধি-২০২০ এবং সরকারি চাকরি আইন এর বিধি ৮(১) পদোন্নতির সব শর্ত পূর্ণ থাকার পরও দেশ-বিদেশে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত দক্ষ শিক্ষকদের পদোন্নতি দেয়া হচ্ছে না। টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজে কর্মরত শিক্ষকরা দীর্ঘ ২২-২৩ বছর চাকরি জীবন অতিবাহিত করায় তাদের মূল  বেতন পদোন্নতির পর প্রাপ্য বেতনের তুলনায় বেশি। এতে এই শিক্ষকদের পদোন্নতি দেয়া হলে সরকারের আর্থিক ব্যয় বৃদ্ধি পাবে না। এতে টিএসসিতে কর্মরত শিক্ষকরা সামাজিক মর্যাদা বৃদ্ধির পাশাপাশি কারিগরি শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনায় তাদের কর্মস্পৃহা বৃদ্ধি পাবে।’

শিক্ষকদের পদোন্নতি, টাইমস্কেল ও সিলেকশন গ্রেডের দাবিতে বার বার কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকে জানানো সত্ত্বেও দাবিগুলো বাস্তবায়নের কোনোরূপ দৃশ্যমান অগ্রগতি হচ্ছে না বলে আ স ম আহছান উল্লাহ্ অভিযোগ করেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, সংগঠনের সভাপতি সিদ্দিক আহমেদ, বাংলাদেশ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ছাত্র শিক্ষক পেশাজীবী সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক মো. ফজলুর রহমান খান, সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ সাইফুল ইসলামসহ অন্যরা।