দিনের খবর প্রচ্ছদ প্রথম পাতা বাজার বিশ্লেষণ

৬৪% লেনদেন ওষুধ, ব্যাংক ও জ্বালানি খাতে

রুবাইয়াত রিক্তা: পুঁজিবাজারে গতকাল দর সংশোধন হয়েছে। অধিকাংশ কোম্পানির দর অপরিবর্তিত থাকায় সূচকের পতন তুলনামূলক কম হয়েছে। গতকাল দর বেড়েছে মাত্র সাত শতাংশ বা ২৫টি কোম্পানির। অন্যদিকে পতন হয় ২৪ শতাংশ কোম্পানির। অপরিবর্তিত ছিল ৬৯ শতাংশ কোম্পানির দর। তবে সব খাতেই ছিল শেয়ার বিক্রির প্রবণতা। তুলনামূলক ব্যাংক খাতে শেয়ার কেনার চাহিদা বেশি ছিল। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) মোট লেনদেনের ৬৪ শতাংশই হয় ওষুধ ও রসায়ন, ব্যাংক এবং জ্বালানি খাতে। বাকি খাতগুলোতে নামমাত্র লেনদেন হয়েছে।

২৪ শতাংশ লেনদেন হয়ে শীর্ষে ছিল ওষুধ ও রসায়ন খাত। এ খাতে মাত্র চারটি কোম্পানির দর বেড়েছে। এই চার কোম্পানির মধ্যে এক্মি ল্যাবের দর ৬০ পয়সা, ইবনে সিনার দর ৬০ পয়সা, ওরিয়ন ইনফিউশন ও ওরিয়ন ফার্মার দর ৩০ পয়সা করে বেড়েছে। এরই মধ্যে ওরিয়ন ফার্মার দুই কোটি ৯০ লাখ টাকা লেনদেন হয়। রেনাটার তিন কোটি ১৯ লাখ টাকা এবং স্কয়ার ফার্মার দুই কোটি ২৯ লাখ টাকা লেনদেন হলেও দর অপরিবর্তিত ছিল। সিলভা ফার্মার দুই কোটি ৩০ লাখ, সেন্ট্রাল ফার্মার এক কোটি ৭৬ লাখ, ফার কেমিক্যালের এক কোটি ৭৫ লাখ টাকা লেনদেন হলেও দরপতন হয়। মোট লেনদেনের ২০ শতাংশ হয় ব্যাংক খাতে। এ খাতে ৪৩ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। মার্কেন্টাইল ব্যাংকের চার কোটি ১০ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ২০ পয়সা। দর বৃদ্ধির শীর্ষ দশের তালিকায় চারটি ছিল ব্যাংক খাতের কোম্পানি। এক দশমিক ২৩ শতাংশ বেড়ে ব্যাংক এশিয়া চতুর্থ, এক দশমিক ২২ শতাংশ বেড়ে সিটি ব্যাংক পঞ্চম, এক দশমিক ১৩ শতাংশ বেড়ে এক্সিম ব্যাংক ষষ্ঠ এবং সপ্তম অবস্থানে থাকা ইস্টার্ন ব্যাংকের দর দশমিক ৯৬ শতাংশ বেড়েছে। ২০ শতাংশ লেনদেন হয় জ্বালানি খাতে। এ খাতে মাত্র তিনটি কোম্পানির দর বেড়েছে। লিন্ডে বিডির ১৪ কোটি ৪৩ লাখ টাকা লেনদেন হয়ে শীর্ষে উঠে আসলেও দরপতন হয় ২৩ টাকা ৯০ পয়সা। সিমেন্ট খাতের লাফার্জহোলসিমের আট কোটি ২০ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ২০ পয়সা। তিন টাকা ৬০ পয়সা দর বেড়ে প্রিমিয়ার সিমেন্ট দর বৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে। মুন্নু সিরামিকের সাত কোটি টাকা লেনদেন হলেও দরপতন হয় তিন টাকা ১০ পয়সা। বিমা খাতের বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি এবং বাংলাদেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি দর বৃদ্ধির শীর্ষ দশে অবস্থান করে। মিউচুয়াল ফান্ড গ্রামীণ ওয়ান স্কিম টু দর বৃদ্ধিতে নবম অবস্থানে ছিল।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..