বিশ্ব সংবাদ

৮২ হাজার গাড়ি প্রত্যাহার করছে হুন্দাই

শেয়ার বিজ ডেস্ক: ৮২ হাজার বৈদ্যুতিক গাড়ি ফিরিয়ে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়াভিত্তিক কোম্পানি হুন্দাই। এসব গাড়ির মধ্যে অন্তত ১৫টিতে আগুন ধরে যাওয়ার খবর আসার পর বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় কোম্পানিটি গাড়িগুলো প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছে। হুন্দাইয়ের ইতিহাসে এটি সবচেয়ে ব্যয়বহুল গাড়ি প্রত্যাহারের ঘটনা। খবর: সিএনএন।

খবরে বলা হয়েছে, প্রত্যাহারের পর এসব গাড়ির ব্যাটারি পরিবর্তন করে দেবে হুন্দাই। এর মাধ্যমে এ ধরনের গাড়ির ত্রুটি কতটা ব্যয়বহুল হতে পারে তা প্রকাশ পাচ্ছে বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন। ভবিষ্যতে ব্যাটারি-সংক্রান্ত এমন ত্রুটি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলোকে ভোগাতে পারে।

এই বিপুলসংখ্যক গাড়ি প্রত্যাহারের ফলে হুন্দাইয়ের অন্তত এক লাখ কোটি কোরিয়ান ওন বা ৯০ কোটি ডলার অর্থ গচ্ছা যাবে। প্রতিটি গাড়িতে খরচ হবে প্রায় ১১ হাজার ডলার। একটি গাড়ির সম্পূর্ণ ব্যাটারি ইউনিট পরিবর্তনকে বড় ধরনের কর্মযজ্ঞ হিসেবে মনে করা হয়। এটি প্রচলিত গাড়ির সম্পূর্ণ ইঞ্জিন ইউনিট পরিবর্তন করার সমান। এর আগে প্রত্যাহার করা খুব কমসংখ্যক জ্বালানিচালিত গাড়িরই সম্পূর্ণ ইঞ্জিন পরিবর্তন করার প্রয়োজন হয়েছে।

২০১৪ সালে ৭৮৫টি পোর্শে স্পোর্টস গাড়ির সম্পূর্ণ ইঞ্জিন পরিবর্তন করার প্রয়োজন হয়েছিল। তবে এতে কী পরিমাণ অর্থ ব্যয় হয়েছে তা প্রকাশ করেনি পোর্শে। এর চেয়েও অনেক বেশি অর্থ এখন ব্যয় করতে হবে হুন্দাইকে। বিশ্বে গাড়িপ্রতি ১১ হাজার ডলার ব্যয় করার নজির খুবই বিরল, যদিও অধিকাংশ গাড়িনির্মাতা প্রতিষ্ঠান এ ধরনের তথ্য প্রকাশ করে না।

বর্তমানে বৈদ্যুতিক গাড়ির তুলনায় তেলের মতো জ্বালানিচালিত গাড়ির সংখ্যা অনেক বেশি। এর মধ্যে কোনো গাড়িরই হুন্দাইয়ের মতো এত পরিমাণ অর্থ ব্যয় করতে হয়নি। সম্প্রতি জেনারেল মোটরস এ খাতে প্রায় ১২০ কোটি ডলার ব্যয় করে। তবে এর আওতায় ছিল প্রায় ৭০ লাখ গাড়ি। প্রতিটির জন্য তাদের ব্যয় হয় মাত্র ২০০ ডলার। গত ১০ বছর থেকে গাড়ি প্রত্যাহারের জন্য নির্মাতাদের গড়ে ৫০০ ডলার করে ব্যয় হয়েছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..