কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

৮৩% কোম্পানির দরপতনে ডিএসইএক্স সূচক কমল ৫২ পয়েন্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক:পুঁজিবাজারে পতন ক্রমাগত বাড়ছে। গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৮৩ শতাংশ কোম্পানির শেয়ার বিক্রির চাপে ডিএসইএক্স সূচকের প্রায় ৫৩ পয়েন্ট পতন হয়। গতকাল দর বেড়েছে হাতেগোনা ৩০টি সাড়ে আট শতাংশ কোম্পানির। লেনদেনের শুরুতেই সূচকের বড় পতন হয়। সাড়ে ১১টার দিকে কেনার চাপ সামান্য বাড়লেও তা দীর্ঘস্থায়ী ছিল না। এরপর ফের ধীরে ধীরে নেমে যায় সূচক। শেষ মুহূর্তে সামান্য ঊর্ধ্বমুখী হলেও লেনদেন শেষে ৫৩ পয়েন্ট পতন হয়। বাকি দুই সূচকেরও বড় পতন হয়। চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক ও শেয়ারদর কমার পাশাপাশি লেনদেনও কমেছে।

বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৫২ দশমিক ৭৪ পয়েন্ট বা এক দশমিক ১০ শতাংশ কমে চার হাজার ৭০৮ দশমিক ৬৮ পয়েন্টে অবস্থান করে।

ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক আট দশমিক ৫৬ পয়েন্ট বা দশমিক ৭৮ শতাংশ কমে এক হাজার ৮০ দশমিক ৯৬ পয়েন্টে অবস্থান করে। আর ডিএস৩০ সূচক ১৪ দশমিক ৬০ পয়েন্ট বা দশমিক ৮৭ শতাংশ কমে এক হাজার ৬৬০ দশমিক ৮৮ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন দুই হাজার ৭১৩ কোটি ৫৫ লাখ টাকা কমে দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ৫৬ হাজার ১৭০ কোটি ১৫ লাখ ৭১ হাজার টাকায়। ডিএসইতে লেনদেন হয় ২৮৮ কোটি ৩৬ লাখ ৯৪ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৩৫০ কোটি ৪৯ লাখ ১৮ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসেবে লেনদেন কমেছে ৬২ কোটি ১২ লাখ টাকা। এদিন ৯ কোটি ৭২ লাখ ৬৯ হাজার ৬৮০টি শেয়ার ৯৬ হাজার ৫৬৫ বার হাতবদল হয়। লেনদেন হওয়া ৩৫২ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৩০টির, কমেছে ২৯২টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩০টির দর।

গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে ন্যাশনাল টিউবস। কোম্পানিটির ১৪ কোটি ৩৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর কমেছে ১৭ টাকা ৭০ পয়সা। এরপরে ইউনাইটেড পাওয়ারের ৯ কোটি ২৫ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ৯০ পয়সা। মুন্নু জুট স্টাফলার্সের সাত কোটি ৮৪ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর কমেছে ৭৬ টাকা ৬০ পয়সা। সিলকো ফার্মার সাত কোটি ৬৮ লাখ টাকা লেনদেন হয়, দর বেড়েছে ১০ পয়সা। ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্সের সাত কোটি ১৮ লাখ টাকা লেনদেন হয়, দর কমেছে আড়াই টাকা। এছাড়া রেনাটার সাত কোটি টাকা, গ্রামীণফোনের ছয় কোটি ৮৫ লাখ টাকা লেনদেন হয়। স্টান্ডার্ড সিরামিকের ছয় কোটি টাকার, স্কয়ার ফার্মার পাঁচ কোটি ৩৬ লাখ টাকা, বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশনের পাঁচ কোটি ৩১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

৯ দশমিক ৩২ শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে গোল্ডেন হার্ভেস্ট এগ্রো। ফার্স্ট বাংলাদেশ ফিক্সড ইনকাম ফান্ডের দর দুই দশমিক ৬৩ শতাংশ, মতিন স্পিনিংয়ের দর দুই দশমিক ৪৮ শতাংশ, ইবিএল এনআরবি মিউচুয়াল ফান্ডের দর দুই দশমিক ২২ শতাংশ, গ্রামীণফোনের দর এক দশমিক ৯৬ শতাংশ, শাহজিবাজার পাওয়ার কোম্পানির দর এক দশমিক ৭১ শতাংশ, উত্তরা ফাইন্যান্সের দর দেড় শতাংশ, পদ্মা অয়েলের দর এক দশমিক ৩৭ শতাংশ, পিপলস ইন্স্যুরেন্সের দর এক দশমিক ৩৫ শতাংশ, প্রগতি ইন্স্যুরেন্সের দর এক শতাংশ বেড়েছে।

৯ দশমিক ৮০ শতাংশ কমে দরপতনের শীর্ষে উঠে আসে আনলিমা ইয়ার্ন। ন্যাশনাল টিউবসের দর ৯ দশমিক ৭৮ শতাংশ, মিথুন নিটিংয়ের দর ৯ দশমিক ৪৫ শতাংশ, সাফকো স্পিনিংয়ের দর ৯ দশমিক ৪৩ শতাংশ, সোনারগাঁও টেক্সটাইলের দর ৯ দশমিক ২৭ শতাংশ, জিলবাংলা সুগার মিলের দর ৯ দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ, হাক্কানি পাল্পের দর ৯ দশমিক শূন্য সাত শতাংশ, বিডি ওয়েল্ডিংয়ের দর আট দশমিক ৯৬ শতাংশ, এসিআই ফরমুলার দর আট দশমিক ৯৩ শতাংশ, ড্রাগন সোয়েটারের দর আট দশমিক ৮৭ শতাংশ কমেছে।

সিএসইতে গতকাল সিএসসিএক্স মূল্যসূচক ৯৭ দশমিক শূন্য পাঁচ পয়েন্ট বা এক দশমিক ১০ শতাংশ কমে আট হাজার ৭০৮ দশমিক ৩১ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৬২ দশমিক ১৩ পয়েন্ট বা এক দশমিক ১১ শতাংশ কমে ১৪ হাজার ৩২০ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল সর্বমোট ২৪০টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ২৬টির, কমেছে ১৯৩টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ২১টির দর।

সিএসইতে এদিন ১০ কোটি ৬৬ লাখ ৭৭ হাজার ৪৯৮ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ২০ কোটি ৯১ লাখ ৭১ হাজার ৫২৩ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন কমেছে ১০ কোটি ২৫ লাখ টাকা। সিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে অবস্থান করে ডরিন পাওয়ার। কোম্পানিটির এক কোটি শূন্য সাত লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ৯৫ লাখ টাকার, আইএফআইসি ব্যাংকের ৩৯ লাখ টাকার, প্রিমিয়ার ব্যাংকের ৩১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

সর্বশেষ..