আজকের পত্রিকা করপোরেট কর্নার

২২ এপ্রিল থেকে গ্রামীণফোনের নতুন চিফ ডিজিটাল অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজি অফিসার সোলায়মান আলম

গত ১ জানুয়ারি থেকে গ্রামীণফোনের ভারপ্রাপ্ত চিফ ডিজিটাল অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজি অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন সোলায়মান আলম। ২০১৬ সালে হেড অব মার্কেটিং হিসেবে তিনি গ্রামীণফোনে তার ক্যারিয়ার শুরু করেন। এরপর, ২০১৭ সালে তিনি গ্রামীণফোনের ডিজিটাল ডিভিশনের দায়িত্ব নেন এবং গ্রামীণফোনকে একটি নতুন ডিজিটাল প্রতিষ্ঠানে পরিণত করার মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটির লক্ষ্য বাস্তবায়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে চলেছেন।

এ নিয়ে গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী ইয়াসির আজমান বলেন, ‘প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতা, নেতৃত্বের বিকাশে সোলায়মান অসামান্য অবদান রেখেছেন। এ প্রতিষ্ঠানে উদ্ভাবনের মাধ্যমে দ্রুততার সাথে কাজ করার ক্ষেত্রে সে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে চলেছে। ব্যবসায়িক কার্যক্রম, কৌশলগত পদ্ধতি ও উদ্ভাবনী মানসিকতার কারণে সে সুপরিচিত।

অত্যন্ত দক্ষতার সাথে তিনি কমার্শিয়াল ভ্যালু চেইনের সকল কার্যক্রমসহ অন্যান্য কার্যক্রমের সাথেও সোলায়মান যুক্ত ছিলেন। আমি অত্যন্ত আনন্দিত এই ভেবে যে, চরম প্রতিযোগিতামূলক বাজারে কাজের নতুন ধরন, উদ্ভাবন ও দ্রুততার সাথে কাজ করা, গতিশীল প্রবৃদ্ধিতে মানুষকে সম্পৃক্ত করা এবং কাজের পার্থক্য গড়ে তোলার মাধ্যমে পরিবর্তিত ডিজিটাল সিস্টেমের সাথে মানিয়ে নিতে সোলায়মান তার সক্ষমতার প্রমাণ দিয়েছেন।’

সোলায়মান আলম বলেন, ‘এই প্রতিষ্ঠানে কাজ করতে পেরে আমি গর্বিত এবং একইসাথে গ্রামীণফোনের দক্ষ লিডারশিপ টিমের অংশ হতে পেরে আমি কৃতজ্ঞ। গ্রামীণফোন অসাধারণ প্রতিষ্ঠান, এখানে অনেকেই কাজ করেন যারা মেধা বিবেচনায় বৈশ্বিকভাবেও সুপরিচিত।

চার বছর আগে গ্রামীণফোনে যোগ দেয়ার পর পুরো প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে যে ভালোবাসা ও সহযোগিতা পেয়েছি তার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ। বিশেষ করে, আমার ওপর বিশ্বাস রাখার জন্য এবং সব ধরনের সহযোগিতা করার জন্য আমি আমার টিমের (যারা আমার সাথে বর্তমানে এবং আগেও কাজ করেছেন) প্রতি কৃতজ্ঞ।’

সোলায়মান বলেন, ‘নতুন এই চ্যালেঞ্জিং পদ নিয়ে আমি রোমাঞ্চিত। বর্তমান সময় পুরো বিশ্ব এবং আমাদের জন্য বেশ চ্যালেঞ্জিং। সমাজের ক্ষমতায়নে আমাদের কৌশলগত লক্ষ্য নিয়ে কাজ করার এখনই সুযোগ। ডিজিটাল রূপান্তরের অগ্রণী প্রতিষ্ঠান হিসেবে, গ্রামীণফোন ইতিমধ্যেই যা অর্জন করেছে তা নিয়ে আমি গর্বিত এবং ডিজিটাল উদ্ভাবন ও সক্ষমতা বিকাশের মাধ্যমে ব্যবসায়িক প্রবৃদ্ধির বিষয়ে আমাদের অঙ্গীকারকেও আমি পুর্নব্যক্ত করতে চাই। গ্রাহকদের প্রয়োজন অনুযায়ী সেবা প্রদানে সবসময় উদ্ভাবনী মনোভাবের এ রকম অসাধারণ দলের নেতৃত্ব দেওয়া আমার জন্য নিঃসন্দেহে গর্বের।’

গ্রামীণফোনে যোগদানের পূর্বে সোলায়মান আলম বেশ কয়েকটি বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানে দায়িত্বশীল পদে কাজ করেছেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসা প্রশাসন ইনস্টিটিউট থেকে বিবিএ সম্পন্ন করেন। বিজ্ঞপ্তি

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..