প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

 

নিজস্ব প্রতিবেদক: সূচকে রেকর্ড গড়লেও দিনশেষে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) লেনদেন আগের কার্যদিবসের তুলনায় প্রায় ২৮৭ কোটি ৭২ লাখ টাকা কমেছে। ডিএসইতে ৩২৭টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার এবং ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে ১৫০টি কোম্পানি ও ফান্ডের শেয়ার এবং ইউনিটদর বেড়েছে। এর বিপরীতে কমেছে ১৫৮টি প্রতিষ্ঠানের দর। দিনশেষে ১৯টি প্রতিষ্ঠানের দর অপরিবর্তিত ছিল।

প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী, সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে গতকাল বৃহস্পতিবার ডিএসইতে এক হাজার ৪১৬ কোটি ৮৩ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা আগের কার্যদিবসের লেনদেনের তুলনায় প্রায় পৌনে তিনশ কোটি টাকা কম। এর আগের কার্যদিবসে ডিএসইতে এক হাজার ৭০৪ কোটি ৫৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছিল। যা গত সাড়ে পাঁচ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ লেনদেনের রেকর্ড। তিনটি সূচকের মধ্যে ডিএসইর শরিয়াহ ইনডেক্স (ডিএসইএস) দুই দশমিক ৮৪ পয়েন্ট কমেছে। অন্যদিকে ডিএসই সার্বিক সূচক (ডিএসইএক্স) আগের কার্যদিবসের তুলনায় ৯ পয়েন্ট বেড়ে পাঁচ হাজার ৩৪২ দশমিক ৮৭ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। একইভাবে ডিএস৩০ ইনডেক্স বেড়েছে দুই দশমিক ১৩ পয়েন্ট।

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে গতকাল সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকোর শেয়ার। গতকাল কোম্পানিটির দুই কোটি ১২ লাখ ২৪ হাজার ১৯৪টি শেয়ার মোট সাত হাজার ৬২৮ বার হাতবদল হয়। যার বাজার মূলধন ছিল দুই হাজার ২৬০ কোটি ১৩ লাখ তিন হাজার টাকা। কোম্পানিটির শেয়ারদর আগের কার্যদিবসের তুলনায় পাঁচ দশমিক ৫০ শতাংশ বা এক টাকা ৮০ পয়সা বেড়েছে। প্রতিটি শেয়ার সর্বশেষ ৩৪ টাকা ৫০ পয়সায় হাতবদল হয়, আর সমাপনী দর ছিল ৩৪ টাকা ৪০ পয়সা। দিনজুড়ে বেক্সিমকোর শেয়ারদর সর্বনি¤œ ৩২ টাকা ৩০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ৩৪ টাকা ৬০ পয়সা পর্যন্ত ওঠানামা করেছে।

লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা বারাকা পাওয়ারের এক কোটি ৯৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর এক কোটি ৭০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তালিকার তৃতীয় স্থানে রয়েছে প্রিমিয়ার ব্যাংক। লেনদেনে এরপর রয়েছে লংকাবাংলা ফাইন্যান্স লিমিটেড, ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড, কেয়া কসমেটিকস, সিএনএ টেক্সটাইল, জেনারেশন নেক্সট, এ্যাপোলো ইস্পাত ও অলিম্পিক অ্যাকসেসরিজ।

দিনশেষে অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সিএসসিএক্স সূচক ২৩ দশমিক শূন্য সাত পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার ৯৪৯ দশমিক ৫৫ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে ৭৮ কোটি ৩০ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা আগের কার্যদিবসের তুলনায় প্রায় ১৮ কোটি ৬৫ লাখ টাকা কম। আগের কার্যদিবসে সিএসইতে ৯৬ কোটি ৯৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছিল। গতকাল দিনজুড়ে সিএসইতে লেনদেন হওয়া ২৭৫টি কোম্পানি ও ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১২৫টির, কমেছে ১২৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২১টির শেয়ারদর।

এদিকে গতকাল ডিএসইতে দর বাড়ার শীর্ষে ছিল বারাকা পাওয়ার। এদিন কোম্পানির শেয়ারদর বেড়েছে ৯ দশমিক ৯৪ শতাংশ। গতকাল লেনদেন শেষে কোম্পানির শেয়ারের সমাপনী মূল্য দাঁড়িয়েছে ৩৭ টাকা ৫০ পয়সায়। এদিন কোম্পানির শেয়ার ৩৩ টাকা ৯০ পয়সা থেকে ৩৭ টাকা ৬০ পয়সায় লেনদেন হয়। ওই তালিকার অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে আইসিবি এএমসিএল থার্ড এনআরবি মিউচুয়াল ফান্ডের ৯ দশমিক ৩৭ শতাংশ, প্রগতি ইন্স্যুরেন্সের আট দশমিক ৭১ শতাংশ, পপুলার লাইফ ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডের আট দশমিক ১৯ শতাংশ, প্রাইম ফাইন্যান্স ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডের আট দশমিক শূন্য তিন শতাংশ, জনতা ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডের সাত দশমিক ৯৩ শতাংশ, ভ্যানগার্ড এএমএল রূপালী ব্যাংক ব্যালান্সড ফান্ডের সাত দশমিক ৬৯ শতাংশ, পিপলস ফাইন্যান্সের সাত দশমিক ১৭ শতাংশ, আইসিবি এএমসিএল সেকেন্ড এনআরবি মিউচুয়াল ফান্ডের সাত দশমিক ৬১ শতাংশ ও পিএইচপি ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডের ছয় দশমিক ৪৫ শতাংশ দর বেড়েছে।